সালথার বল্লভদী ইউপিতে বিতর্কিত প্রার্থীর মনোনয়নে তৃণমূলে ক্ষোভ

সালথার বল্লভদী ইউপিতে বিতর্কিত প্রার্থীর মনোনয়নে তৃণমূলে ক্ষোভ

জাকির হোসেন ( ফরিদপুর) : 
ফরিদপুরের সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নে অনুপ্রবেশকারী বিতর্কিত প্রার্থীকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকালে সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন বিতর্কিত ব‌্যা‌ক্তি পাওয়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে মনোনয়ন প্রত্যাশী বেশ ক‌য়েকজন আওয়ামীলীগ নেতা ও তা‌দের কর্মী সমর্থকসহ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ ছাত্রলীগসহ আওয়ামীলীগের সমর্থকরা। উপ‌জেলা শ্রমিকলী‌গের সভাপতি খন্দকার সাইফুর রহমান শা‌হিন এর বাড়ির আ‌ঙ্গিনায় এই বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়ার সহ সভাপতি কাজী দেলোয়ার হোসেন, উপ‌জেলা শ্রমীক লীগের সভাপতি খন্দকার সাইফুর রহমান শাহিন, বল্লভদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ ইউনুচ মোল্যা, সিনিয়র সহ সভাপতি জাকির হোসেন জাকু কাজী, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দুলাল কাজী, বল্লভদী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জয়নাল মোল‌্যা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অলিয়ার রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা অপুর্ব শিকদার, যুবলীগ নেতা জাহিদ হাসান, ইউনিয়ন শ্রমিককলীগ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সহ ইউনিয়ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের বেশ ক‌য়েকজন সভাপতি সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।
বল্লভদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতির ইউনুস মোল্লার বক্তব্যে তিনি বলেন আমরা নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচন করবো না, আমরা বিতর্কিত অনুপ্রবেশকারী ব্যাক্তির বিরুদ্ধে নির্বাচন করবো। আমরা যোগ্য সক্রিয় ব্যাক্তিকে প্রার্থী হিসেবে দাড় করিয়ে, নির্বাচনে জয়ী করে  ইউনিয়নের সর্বসাধারণের সেবা করার সুযোগ করে দেব।
বক্তব্যে বল্লভদী ইউনিয়ন আওয়ামীলিগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বলেন, কখনো ছাত্রলীগ করে নাই, যুবলীগ করে নাই, পারিবারিক ভাবে কোন আওয়ামীলীগের অস্তিত্ব নেই এমন ব্যাক্তিকে বল্লভদী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আওয়ামীলীগের সমর্থীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে সাধারন জনগন ও আওয়ামীলীগ মেনে নিতে পারে না। প্রয়োজনে আমরা আমাদের নেতা শাহদব আকবর চৌধুরীর লাবু মামার শরণাপন্ন হব। আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃ‌ন্দের কাছে যাব তবুও কোন শিবির কর্মী কে দলীয় সমর্থীত প্রার্থী হিসেবে মেনে নেব না।
এসময় সালথা উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি খন্দকার সাইফুর রহমান শাহিন বলেন আমি আওয়ামীলিগের পক্ষে মনোনয়ন সাবমিট করি আশাবাদি ছিলাম দলীয় মননোয়ন পাবো কিন্তু পাইনি, না পেয়ে যতটা না দুঃখ পেয়েছি তার চেয়ে বেশি দুঃখ পেয়েছি ওই সমালোচিত, বিতর্কিত দলে অনুপ্রবেশকারীর কথা শুনে। আমরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ ছাত্রলীগ সহ আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের থেকে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করে ব্যাক্তির বিরুদ্ধে নির্বাচন করে জয়ী হয়ে দেখিয়ে দেবো প্রকৃত খাঁটি মুজিব সৈনিকেরা কখনও পরা‌জিত না।

Share This Post