সরকারী কলেজে বেসরকারী কর্মচারীদের চাকরী রাজস্বখাতে নেয়ার দাবীতে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন

সরকারী কলেজে বেসরকারী কর্মচারীদের চাকরী রাজস্বখাতে নেয়ার দাবীতে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন

সরদার মজিবুর রহমান (গোপালগঞ্জ) :

সারা দেশে সরকারী কলেজে কমর্রত (দৈনিক হাজিরা ভিত্তিক) বেসরকারী কর্মচারীদের চাকরী রাজস্বখাতে নেয়ার দাবীতে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় সরকারী কলেজের বেসরকারী কর্মচারী ইউনিয়নের আয়োজনে সরকারী বঙ্গবন্ধু কলেজের হল রুমে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি শাহ ওমর ফারুক।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সারা বাংলাদেশের ৪’শ টি সরকারী কলেজ ও ৩টি সরকারী মাদ্রাসায় পাঁচ সহ¯্রাধিক বেসরকারী কর্মচারীরা কর্মরত রয়েছেন। কেউ ২৫ বছর আবার কেউ ১৫ বছর ধরে চাকরী করছেন। কিন্তু তাদের মাসিক বেতন মাত্র ৩ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকা। এত অল্প টাকায় জীবন ধারনসহ সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। ২০১৩ সালে জনবল নিয়োগে এসব কর্মচারীদের কোন অগ্রাধিকার দেয়া হয়নি। ২০২০ সালে আবারো জনবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিলেও মহামান্য সপ্রীম কোর্টের নির্দেশনা মানা হয়নি। করোনাকালীন সময় মাসিক বেতন ভাতা কমে যাওয়ায় এখন তারা মাত্র দেড়হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা পাচ্ছে। অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এসব বেসরকারী কর্মচারীদের চাকুরী রাজস্বখাতে নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনা করেন তারা।
সরকারী কলেজের বেসরকারী কর্মচারী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি দুলাল সরকারের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে গোপালগঞ্জ শিক্ষক পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক ও গোপালগঞ্জ সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা বেল্লাল হোসেন, মহিলা সম্পাদিকা অঞ্জনা রায় তাদের দাবীর যৌতিকতা তুলে ধরেন। এ সংবাদ সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন কলেজের বেসরকারী কর্মচারী ও গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Share This Post