শ্রীমঙ্গলে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে প্রকৃতিক বালু উত্তোলনকালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

শ্রীমঙ্গলে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে প্রকৃতিক বালু উত্তোলনকালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার বিভিন্ন প্রাকৃতিক ছড়া থেকে সরকারি অনুমতি ব্যতীত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত উক্ত ইউনিয়নের সাতগাঁও চৌমহনা, ভুনবীর চৌমহনা, মির্জাপুর রোড, ভুনবীর ও আলিশারকুলে অবৈধভাবে উত্তোলন করা ২,০১,১২৭ ( দুই লক্ষ এক হাজার একশো সাতাশ) ঘনফুট বালু জব্দ করে।

সোমবার (৯ আগস্ট) দিনব্যাপী অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত উক্ত এলাকায় অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করার দায়ে আব্দুল ওয়াহিদ নামের একজনকে আটক করে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন এবং বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত দুইটি ড্রেজার মেশিন জব্দ করে ধ্বংস করা হয় সেই সাথে একটি বালুবহনকারী ট্রাক্টর আটক করা হয়৷ এ সময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সাথে জড়িত অন্যরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয় শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নজরুল ইসলাম এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. নেছার উদ্দিন সহ শ্রীমঙ্গল থানার সমন্বয়ে গঠিত টিমের মাধ্যমে।

শ্রীমঙ্গলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) নেছার উদ্দিন অভিযানের ব্যাপারে জানান, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসানের নির্দেশনায় আজ দিনব্যাপী আমরা অবৈধ বালু উত্তোলন ও পরিবহনের বিরুদ্ধে উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নে অভিযান পরিচালনা করি ৷ এসময় বালু উত্তোলনের সময় হাতেনাতে একজনকে আটক করে মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে একমাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করি ৷ পাশাপাশি দুটি ড্রেজার মেশিন ধ্বংস করি একটি ট্রাক্টর আটক করি এবং দুই লক্ষ এক হাজার একশত সাতাশ ঘনফুট বালুও জব্দ করা হয় ৷ এসব অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আমাদের এধরনের অভিযান ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি ৷

তিনি আরো জানান অভিযান পরিচালনাকালে অনান্যরা পালিয়ে যায় তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এবং জব্দকৃত বালু বিধিমত নিলামে বিক্রির জন্য প্রক্রিয়া চলমান।

Share This Post