রায়েরবাজার এলাকা হতে ১০ কেজি গাঁজাসহ ১মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২

রায়েরবাজার এলাকা হতে ১০ কেজি গাঁজাসহ ১মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২

বাংলাদেশ আমার অহংকার এই শ্লোগান নিয়ে র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেইজঙ্গী, সশস্ত্র সন্ত্রাসী, জলদস্যু গ্রেফতার সহ মাদক দ্রব্য উদ্ধারে অগ্রণী ভূমিকাপালন করে আসছে। সমাজে মাদকের ভয়াল থাবার বিস্তার রোধকল্পে মাদক বিরোধীঅভিযানে অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি র‌্যাব নিয়মিতআভিযানিক কার্যক্রমের মাধ্যমে মাদকের চোরাচালান, চোরাকারবারী, চোরাচালানেররুট, মাদকস্পট, মাদকদ্রব্য মজুদকারী ও বাজারজাতকারীদের চিহ্নিত করে তাদেরগ্রেফতারসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে যাচ্ছে। র‌্যাব-২ সব সময়ই মাদকেরবিরুদ্ধে বলিষ্ঠ অবদান রেখে চলেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতেজানতে পারে যে, মোহাম্মদপুর থানাধীন রায়ের বাজার মেকাব খান রোড একটিবাসায় এক জন মাদক ব্যবসায়ী মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্তগোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে ১৩/০৮/২০২১ ইং তারিখ ০৩.৫৫ ঘটিকায় র‌্যাব-২ এরআভিযানিক দল মোহাম্মদপুর থানাধীন রায়েরবাজার মেকাব খান রোডের একটিবাসায় অভিযান পরিচালনা করে মাদক কারবারী চক্রের সদস্য ক। মোঃ আল আমিন(২২), কে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে নিষিদ্ধ মাদক সংক্রান্ত বিষয়েজিজ্ঞাসাবাদে প্রথমে অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে তার বাসা তল্লাশী করে খাটেরনিচ থেকে বেল্ট আকারে তৈরি চারটি প্যাকেট মোট ১০ কেজি ৬০০ গ্রাম গাঁজাযাহার আনুমানিক মূল্য ২,১২,০০০ টাকা ও মাদক বিক্রয়লব্ধ ৫,৭০০ টাকা উদ্ধার করাহয় । গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, সে শরীরের সাথে বেল্ট গুলোফিটিং করে সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে নিয়ে আসে,এবং দেশেরআইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে অভিনব পন্থায় নিত্য নতুনকৌশলে অবৈধভাবে সীমান্ত এলাকা থেকে স্বল্প মূল্যে ক্রয় করে মোহাম্মদপুরঢাকাসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে চড়াদামে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল।
এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যযাচাই বাচাই করে ভবিষ্যতে র‌্যাব-২ এ ধরনের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহতরাখবে।

Share This Post