মোংলায় প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা, বেড়েছে ভোটারদের কদর

মোংলায় প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা, বেড়েছে ভোটারদের কদর

আলী আজীম (মোংলা,বাগেরহাট) :

আসছে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর মোংলা উপজেলার ০৬ টি ইউনিয়ন পরিষদে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটছেন। চালাচ্ছেন প্রচারনা, দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতির বাণী। নির্বাচনকে সামনে রেখে উপজেলা জুড়ে ভোটারদের মধ্যে বইছে উৎসাহ-উদ্দীপনাও। দিন যতই ঘনিয়ে আসছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা ততই জমে উঠেছে। চায়ের দোকানে আড্ডার ফাঁকে চলছে প্রার্থীদের নিয়ে আলাপ-আলোচনা। পোস্টার, ব‌্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো শহর। কাক ডাকা ভোর থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত নির্বাচনকে সামনে রেখে ব‌্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।প্রতিদিনই প্রার্থীরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে পরামর্শমূলক সভা, পথসভা, উঠান বৈঠক করে যাচ্ছেন।

সরেজমিনে উপজেলার চাঁদপাই,মিঠাখালি ও সুন্দরবন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজারসহ বিভিন্ন স্থান পোস্টারে ছেয়ে গেছে। ভোটারদের আকৃষ্ট করতে বাজছে নির্বাচনী নানান সঙ্গীতও। প্রার্থীরা ভোটের জন্য ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিতব্য স্থগিত হওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণার পর মাঠে নেমেছেন মোংলার ৬ ইউনিয়ন পরিষদের প্রার্থীরা। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর এই উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত হবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।

রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২০ সেপ্টেম্বর (সোমবার) প্রথম ধাপে মোংলা উপজেলার ছয়থটি ইউনিয়নের ভোটগ্রহণ চলবে। তারমধ্যে প্রথমবারের মতো সোনাইলতলা ও বুড়িরডাঙ্গা ইভিএমএ এবং বাকি ৪টি ইউনিয়ন পরিষদ ভোটকেন্দ্রে ব্যালটে ভোট

গ্রহন হবে।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে নির্বাচন স্থগিত হওয়ার পর প্রচার প্রচারনা থেকে সরে এসেছিলেন প্রার্থীরা। নতুন করে তারিখ ঘোষণার পর আবারও সরব হয়ে উঠেছেন সদস্য পদের প্রার্থীরা। নতুন তারিখ ঘোষণার পর নতুন করে লাগানো হচ্ছে পোস্টার, করা হচ্ছে উঠান বৈঠক। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাইতে শুরু করেছেন অনেকেই। হাট-বাজারের চায়ের দোকানগুলো নির্বাচনী আলাপে মুখর হয়ে উঠছে।

তবে চেয়ারম্যান পদে কোন প্রতিদন্দী না থাকায় ৬টি ইউনিয়ন পরিষদে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীকের সকল চেয়ারম্যান প্রার্থী।

ভোটাররা জানান, করোনার কারণে নির্বাচন স্থগিত হওয়ার পরবর্তী সময়ে এলাকার সাধারণ মানুষের পাশে ছিলেন অনেকেই।

প্রতিবারই নির্বাচনের আগে নানা প্রতিশ্রুতি দেন প্রার্থীরা। এবারও তার ব‌্যতিক্রম নয়। তাই প্রার্থী বাছাইয়ের আগে জনমত ও মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন এবং নাগরিক সেবায় যাকে যোগ‌্য মনে হবে তাকেই ভোট দেবেন।

মোংলা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, নির্বাচনকে ঘিরে সব প্রস্তুতি চলছে। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে সে দিকে নজর রাখা হচ্ছে।

Share This Post