প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা হচ্ছে ভাতে-মাছে বাঙালির চিরন্তন বৈশিষ্ট্য ফিরিয়ে আনতে হবে- নৌ-প্রতিমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা হচ্ছে ভাতে-মাছে বাঙালির চিরন্তন বৈশিষ্ট্য ফিরিয়ে আনতে হবে- নৌ-প্রতিমন্ত্রী

                     মোঃ রেজানুল হক রেজু (বোচাগঞ্জ, দিনাজপুর ) : 

”বেশী বেশী মৎস্য চাষ করি, বেকারত্ব দুর করি” এই প্রতিবাদ্য কে সামনে রেখে জাতিয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২১ দিনাজপুরর বোচাগঞ্জ উপজেলা মৎস্য অফিস আয়োজিত বোচাগঞ্জ উপজেলার পুলহাটে রবিবার (২৯ আগষ্ট) সকালে  তুলাই নদীতে মাছের পোনা অবমুক্ত ও জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ শুভ উদ্বোধন করেন, আধুনিক বিরল বোচাগঞ্জের রুপকার, বাংলাদেশ সরকারের নৌ-পরিবহণ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি। পরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারের কঠোর অবস্থানের কালে এ বছর নদীতে মা ইলিশ ধরতে সাহস পায়নি জেলেরা। ফলে পূর্বের তুলনায় এ বছর নদীতে ইলিশের সংখ্যাও বেড়েছে।প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেসব উন্মুক্ত খাস জলাশয়গুলো দখলে আছে সরকার সেগুলো পুনরুদ্ধার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এসব জলাশয়ে মাছ চাষ করা হবে। বিদেশে যাতে মাছ রপ্তানি করা যায়, সে ব্যবস্থা করা হবে। যারা ব্যক্তিগত পুকুর থাকা সত্ত্বেও মাছ চাষ করছেন না, মাছ চাষে আগ্রহী হলে সরকারের পক্ষ থেকে তাদের সহযোগিতা করা হবে।“প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা হচ্ছে ভাতে-মাছে বাঙালির চিরন্তন বৈশিষ্ট্য ফিরিয়ে আনতে হবে। রবিবার (২৯ আগস্ট) জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ, ২০২১ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় নৌ-প্রতিমন্ত্রী একথা জানান। এসময় মন্ত্রী বলেন, দেশের মৎস্য খাতকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে বিকশিত করছেন এ ধারাকে অব্যাহত রেখে মৎস্য সম্পদে বিশ্বে আমরা অনন্য-আসাধারণ জায়গায় পৌঁছে যাবো।মৎস্য খাত বাংলাদেশে একটি স্বর্ণালী অধ্যায় সৃষ্টি করছে বলে জানিয়েছেন নৌ-প্রতিমন্ত্রী এ লক্ষ্য নিয়ে মৎস্য খাতকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিয়ে এবারের মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন হতে যাচ্ছে। ভাতে-মাছে বাঙালির নিজস্ব বৈশিষ্ট্যের জায়গাতে আমরা শুধু পরিপূর্ণতাই আনবো না, বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাশা অনুযায়ী মাছ হবে দ্বিতীয় প্রধান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী সম্পদ। সে লক্ষ্য নিয়ে সরকার কাচ করছে।”এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, “‘বেশি বেশি মাছ চাষ করি, বেকারত্ব দূর করি’ এ প্রতিপাদ্যে ২৮ আগস্ট থেকে ০৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন করা হচ্ছে। এ সময় তিনি বলেন, মাছ চাষের মাধ্যমে বেকারত্ব লাঘব হচ্ছে, আর্থিক স্বচ্ছলতা বাড়ছে এবং উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে। গ্রামীণ অর্থনীতি সচল হচ্ছে। আবার মাছ রপ্তানির মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ আমরা দেশে আনতে সক্ষম হচ্ছি। পৃথিবীর অনেক দেশের চেয়ে আমাদের মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।” “আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে মৎস্য খাত অভাবনীয় ভূমিকা রাখছে। মৎস্য খাতে উপযুক্ত পদক্ষেপের কারণে আমাদের দেশীয় প্রজাতির মাছ, সামুদ্রিক মাছ ও অপ্রচলিত মৎস্য সম্পদের বিস্তার ঘটছে। বাজারে পর্যাপ্ত মাছ রয়েছে। ফলে মানুষের পুষ্টি চাহিদা পূরণ হচ্ছে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ছে, গড় আয়ু বৃদ্ধি পাচ্ছে। মাতৃমৃত্যুর হার শিশু মৃত্যুর হার কমেছে।মৎস্য খাতে যারা অবদান রাখছেন, ভালো ভূমিকা রাখছেন তাদের উৎসাহিত করতে এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি দিতে এ বছর বিভিন্ন খাতে মৎস্য পদক প্রদান করা হচ্ছে বলেও এসময় জানান মন্ত্রী।উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল এর সভাতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ আসলাম, মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ নাহিদ হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আফছার আলী,উপজেলা বোচাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাহমুদুল হাসান সহ সকল পর্যায়ের দলীয় নেতৃবৃন্দ এবং মৎস্য কার্যালয়ের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ।

Share This Post