নোবিপ্রবিতে ১ম বার আন্তর্জাতিক কনফারেন্স শুরু

নোবিপ্রবিতে ১ম বার আন্তর্জাতিক কনফারেন্স শুরু

আবদুল্লাহ আল নোমান (নোবিপ্রবি ) :

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ‘মেশিন ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড ইমার্জিং টেকনোলজিস’ শীর্ষক  ২০ টিরও অধিক বিশ্ববিদ্যালয়  থেকে আগত প্রতিনিধিরা তাদের শতাধিক গবেষণা পত্র উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে প্রথমবারের মতো  আন্তর্জাতিক গবেষণা সম্মেলনের উদ্বোধনী  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২) সকাল ১০.৩০ মিনিটে নোবিপ্রবি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী (এম.পি)।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. সাজ্জাদ হোসেন,নোবপ্রবি  উপাচার্য ও কনফারেন্সের প্রধান পৃষ্ঠপোষক প্রফেসর ড. মোঃ দিদার-উল-আলম উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী ও কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও শিক্ষা বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ, রেজিস্ট্রার (অ.দা) মোহাম্মদ জসীম উদ্দিনসহ বিভিন্ন অনুষদসমূহের ডিন, ইনস্টিটিউটসমূহের পরিচালক, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

কনফারেন্সের প্রচার ও প্রকাশনা কমিটির আহ্বায়ক মুহাম্মদ আব্দুস সালাম বলেন, ‘নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে মেশিন ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড ইমার্জিং টেকনোলজিসের ওপর আন্তর্জাতিক কনফারেন্স। জ্ঞান-বিজ্ঞানের প্রায় প্রতিটি শাখায় নতুন নতুন জ্ঞান সৃষ্টির মাধ্যমে নোবিপ্রবি অবদান রেখে চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় আন্তর্জাতিক এ কনফারেন্সের আয়োজন। এই প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। এজন্যই আমরা এ ধরনের আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের আয়োজন করেছি।’

কনফারেন্সের সংগঠক শাহরিয়ার সেতু এ বিষয়ে বলেন, ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে আমাদের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প এবং নিত্যদিনের সামগ্রীর ওপর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এবং সহযোগী প্রযুক্তির ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। সেই লক্ষ্যে নোবিপ্রবি প্রথমবারের মত এই ধরনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছে।’

নোবিপ্রবি উপাচার্য ও কনফারেন্সের প্রধান পৃষ্ঠপোষক প্রফেসর ড. মোঃ দিদার-উল-আলম তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘মেশিন ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড ইমার্জিং টেকনোলজির ওপর আয়োজিত আন্তর্জাতিক এ কনফারেন্স তথ্য-প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে আমাদেরকে আরও সমৃদ্ধ করবে। নোবিপ্রবিতে প্রথমবারের মত আয়োজিত এ কনফারেন্সে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের গবেষক, শিক্ষাবিদ এবং বিজ্ঞানীরা তাঁদের গবেষণা প্রবন্ধ তুলে ধরবেন, এতে আমাদের শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তিতে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বর্তমান প্রেক্ষাপটে তাই এ ধরণের আয়োজন প্রশংসার দাবি রাখে। আমি এ কনফারেন্সের সফলতা কামনা করছি এবং এমন একটি আয়োজনের সঙ্গে জড়িত সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. সাজ্জাদ হোসেন বলেন,‘ উন্নত বাংলাদেশ বির্নিমাণে আমাদের প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত গবেষণা ও নিত্যনতুন আবিষ্কারের ওপর গুরুত্বারোপ করা। বর্তমান সময়ে তথ্য-প্রযুক্তির ওপর আমাদের জীবন বহুলাংশে নির্ভরশীল। বাংলাদেশও এই সেক্টরে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে, যা সম্ভব হয়েছে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে। আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ বির্নিমাণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে প্রধান ভূমিকা পালন করতে হবে। আমাদের মেধা রয়েছে, দক্ষ গবেষক রয়েছে, একে কাজে লাগাতে হবে এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে গবেষণার ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে। তখনই জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী (এম.পি) বলেন, ‘তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে আমরা দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি। বিশেষত আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এবং ডাটা প্রসেসিং ক্ষেত্রে আমরা উন্নতি করছি। উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে প্রায়োগিক ও প্রযুক্তিগত বিষয়গুলোর ওপর গুরুত্বারোপ করতে হবে। ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে, তবেই উন্নত ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব। নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত আন্তর্জাতিক এ কনফারেন্সের সাফল্য কামনা করছি। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’

Share This Post
eskişehir escort - escort adana - bursa escort - escort izmit - escorteskişehir escort - escort adana - bursa escort - escort izmit - escort