নদীর সংযোগ খালগুলো ভরাট হওয়ায় কালীগঞ্জের অধিকাংশ বিল জলাবদ্ধ : কৃষকরা হচ্ছে নিঃস্ব

নদীর সংযোগ খালগুলো ভরাট হওয়ায় কালীগঞ্জের অধিকাংশ বিল জলাবদ্ধ : কৃষকরা হচ্ছে  নিঃস্ব

নিয়ামত উল্লাহ (কালীগঞ্জ ,ঝিনাইদহ) :
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ২২৫টি গ্রামের অধিকাংশ বিল জলাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। চলতি বর্ষায় বিলের অধিকাংশ রোপা ধান তলিয়ে গেছে। এমনি ভাবে প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে বিলের ধান তলিয়ে যায়। ফলে প্রতিবার ফসল উপাদন কম হয়। দিন আসে দিন যায় বদলায় অনেক কিছু। শুধু বদলায় না এ উপজেলার কৃষকের ভাগ্য।
স্থায়ী জলাবদ্ধতার কারনে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও এলাকায় অধিকাংশ বিলের জমি চাষ করতে পারিনি চাষিরা। জলাবদ্ধতা সৃষ্টির মূল কারণ নদীর সংযোগ খালগুলো ভরাট হওয়া। বিলের জমিতে জলাবদ্ধতার কারণে চাষিরা ধান চাষ করতে না পেরে তাদের মাঝে দেখা দিয়েছে হাহাকার। কাজ না থাকায় শত শত মানুষ বেকার হয়ে পড়েছে। জীবন বাচানোর তাগিদে তারা পাড়ি দিচ্ছে শহর বা অন্যত্র । কেউ গার্মেন্টস, কেউ ইট ভাটায় কাজ নিচ্ছে। কেউ আবার শহরে রিক্সা চালাচ্ছে। জলাবদ্ধতার কারণে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন। তারা না পারে কইতে না পারে সইতে , না পারছে চাইতে। গৃহপালিত হাঁস-মুরগী , ছাগল , গরু বিক্রি করেও অনেকে সন্তানদের লেখা পড়া এবং পরিবারের ভরণ পোষন নির্বাহ করছে।
অপর দিকে নদীর সংযোগ খালগুলো ভরাট হয়ে যাওয়ায় পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে অধিকাংশ বিলে পানি জমে থাকায় চাষাবাদ করা সম্ভব হচ্ছে না। এলাকাবাসী আবাদি জমি জলাবদ্ধতার হাত থেকে রক্ষার জন্য নদীর সংযোগ খালগুলো সংস্কারের জন্য জোর দাবী জানিয়েছে।

Share This Post