‘দেশ বন্ধু’কে ১৫ দিনের মধ্যে উত্তোলনের নির্দেশ

‘দেশ বন্ধু’কে ১৫ দিনের মধ্যে উত্তোলনের নির্দেশ

আলী আজীম (মোংলা,বাগেরহাট):
মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে ৮৫০ মেট্রিক টন ডেপ সার নিয়ে ডুবে যাওয়া লাইটার জাহাজ এমভি দেশ বন্ধুকে জরুরি ভিত্তিতে উত্তোলনের নির্দেশ দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। একই সাথে ডুবে যাওয়া জাহাজ থেকে দ্রুত সার অপসারণেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।শনিবার (৯ অক্টোবর) এ তথ্য নিশ্চিত করেন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার ও সচিব (ভারপ্রাপ্ত) কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন।তিনি বলেন, আজই এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে দেশ বন্ধু লাইটার জাহাজের মালিক কাজী নজরুল ইসলামকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বন্দরের নৌ চ্যানেল থেকে জরুরি ভিত্তিতে ১৯৭৩ আইনের ১১ ধারা মোতাবেক আগামী ১৫ দিনের মধ্যে দুর্ঘটনাস্থল থেকে জাহাজটিকে উদ্ধার করতে হবে। এ সময়ের মধ্যে মালিকপক্ষ উদ্ধারে ব্যর্থ হলে বন্দরের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় জাহাজটি উদ্ধার করা হবে। 

এজন্য মালিকপক্ষকে সম্পূর্ণ আর্থিক খরচ দিতে হবে কর্তৃপক্ষকে। না দিলে জাহাজটি নিলামে তুলবে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। একই সাথে আগামী তিনদিনের মধ্যে ডুবে যাওয়া ওই জাহাজ থেকে ডেপ সার অপসারণের কথাও বলা হয়েছে।

এদিকে, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ ও বিজ্ঞান বিভাগের ডিসিপ্লিন অধ্যাপক আবদুল্লাহ হারুন চৌধুরী বলেন, পশুর নদীতে ডুবে যাওয়া জাহাজ থেকে ডেপ সার এরই মধ্যে পানিতে ছড়িয়ে পড়েছে। ইউরিয়া ও টিএসপি মিশ্রণে তৈরি হয় ডেপ সার, ফলে এই সার অতিমাত্রায় দূষণ তৈরি করে। তাতে ব্যাকটেরিয়া ও অনুবিক্ষণিক জীবাণু বেড়ে জলজ প্রাণীর রোগ তৈরি হবে। এক্ষেত্রে সবাইকে সচেতন হওয়া উচিত ছিল বলে জানান তিনি। 

ইতিমধ্যে জাহাজটি ১৫ দিনের মধ্যে উত্তোলনের নির্দেশের অনুলিপি সুন্দরবন বিভাগ, পরিবেশ অধিদপ্তর, কোস্টগার্ড, নেভী, পরিবহন মালিক সমিতি, বার্থ এন্ড শিপ অপারেটর এ্যাসোসিয়েশন ও মোংলা থানাকে দিয়েছে মোংলা বন্দর।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (৮ অক্টোবর) পশুর নদীতে ডেপ সার নিয়ে ডুবে যায় লাইটার জাহাজ দেশ বন্ধু।

Share This Post