তৈরি পোশাক খাতের ডিজিটাইজেশানের জন্য প্রি-সিড রাউন্ডে দুই লাখ ৬০ হাজার ডলার বিনিয়োগ পেল মার্চেন্টবে

তৈরি পোশাক খাতের ডিজিটাইজেশানের জন্য প্রি-সিড রাউন্ডে দুই লাখ ৬০ হাজার ডলার বিনিয়োগ পেল মার্চেন্টবে

প্রি-সিড রাউন্ডে দুই লাখ ৬০ হাজার ডলার অ্যাঞ্জেল ইনভেস্টমেন্ট পেয়েছে তৈরি পোশাক খাতের বিজনেস টু বিজনেস (বিটুবি) মার্কেটপ্লেস ও সফটওয়্যার সেবা বিষয়ক স্টার্ট-আপ মার্চেন্টবে। প্রি-সিড রাউন্ডের এই বিনিয়োগ মার্চেন্টবে তৈরি পোশাক খাতের জন্য বিশেষায়িত বিজনেস ইন্টেলিজন্স সলিউশান, স্মার্ট ফ্যাক্টরি ম্যানেজমেন্ট টুলস ও বহুমাত্রিক প্ল্যাটফর্ম সেবার উন্নয়নে ব্যবহার করবে।
এই বিষয়ে কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবরার হোসেন সায়েম বলেন, “তৈরি পোশাক খাতে গুণগত পরিবর্তন নিয়ে আসার লক্ষ্যে মার্চেন্টবের যাত্রা শুরু হয়েছে। এই বিনিয়োগ তৈরি পোশাক খাতের ডিজিটাইজেশান নিয়ে আমাদের ধারণাগুলোর পূর্ণ বাস্তবায়ন করতে সহায়তা করবে। আমরা আশা করি, খুব দ্রুত মার্চেন্টবেকে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতের গুণগত পরিবর্তনের বড় প্রভাবক হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হব।”
বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতের ডিজিটাইজেশান, সাপ্লাই চেইনের সংযোগ এবং বাংলাদেশ থেকে বৈশ্বিক বায়ারদের সোর্সিংকে সহজ করার স্বপ্ন নিয়ে ২০২০ সালে যাত্রা শুরু করে মার্চেন্টবে লিমিটেড। বর্তমানে মার্চেন্টবে এক হাজারেরও বেশি সাপ্লায়ারের একটি প্ল্যাটফর্ম।
বিগত এক বছর ধরে মার্চেন্টবে বাংলাদেশের সাপ্লায়ারদের ডিজিটাল লিটারেসি এবং তৈরি পোশাক খাতে প্রযুক্তি পণ্যের প্রয়োজনীয়তার স্থানগুলো চিহ্নিত করতে গবেষণা ও উন্নয়নের কাজ করে। করোনাকালে মার্চেন্টবে মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে অসংখ্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানকে অনলাইনের মাধ্যমে সোর্সিংয়ের সেবা দিয়েছে।
করোনার সময়ে ডিজিটাল ট্রেড উইকের মাধ্যমে ৪০টি দেশের প্রতিনিধিদের সংযুক্ত করে। ডিজিটাল ট্রেড উইকে এক হাজার ৪০০ সাপ্লায়ার ও ৩০০ বায়ারকে সংযুক্ত করতে সক্ষম হয় মার্চেন্টবে। ৭৫টি পাবলিক ও প্রাইভেট সেশানের মাধ্যমে মার্চেন্টবে করোনাকালে করনীয়, ডিজিটাইজেশানের সুবিধা ও প্রয়োজনীয়তা এবং ব্যবসায়িক নানান দিক নিয়ে সাপ্লায়ার ও বায়ারদের সহযোগীতা প্রদান করে।
বর্তমানে তৈরি পোশাক খাতের জন্য বিশেষায়িত যোগাযোগ ও ব্যবস্থাপনা সফটওয়্যার সেবা এবং বিটুবি মার্কেটপ্লেস নির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে মার্চেন্টবে। 

Share This Post