গোপালগঞ্জে তৃতীয় দিনে চলছে কঠোর বিধি নিষেধ

গোপালগঞ্জে তৃতীয় দিনে চলছে কঠোর বিধি নিষেধ

সরদার মজিবুর রহমান (গোপালগঞ্জ):

সরকার ঘোষিত কঠোর বিধি নিষেধের তৃতীয় দিনে আজ শনিবার গোপালগঞ্জ শহরসহ জেলার ৫ উপজেলায় কঠোর পালন হচ্ছে।

শনিবার (০৩ জুন) সকাল থেকে গোপালগঞ্জ জেলা ও উপজেলা সদরের সকল দোকান পাট বন্ধ রয়েছে। সকালে কিছু সময়ের জন্য কাঁচা ও নিত্যপণ্যের দোকান খোলা ছিল। জেলা শহরের কয়েকটি প্রবেশমুখে দেয়া হয়েছে ব্যারিকেড। রিক্সা, ভ্যান, ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক ও থ্রি-হুইলার চলাচলে বাঁধা দিলেও অলিগলিতে কিছু সংখ্যক যানবাহন চলাচল করছে। ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক দিয়ে দূরপাল্লা ও অভ্যান্তরিন রুটে ডান চলাচল এবং গোপালগঞ্জ-রাজশাহী রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

কঠোর বিধি নিষেধ কার্যকর করতে জেলা ও উপজেলায় ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে মাঠে রয়েছে সেনা, বিজিবি, র‌্যব, পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশ। ১২টি ভ্রাম্যমান আদালত জেলা ও উপজেলা সদরে অভিযান পরিচালনা করে বিধি নিষেধ কার্যকর করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। স্বাস্থ্যবিধি না মানা, অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া, মাস্ক পরিনাধন না করাসহ বিভিন্ন অপরাধে ৩৯ ব্যক্তিকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্যাম্যমান আদালত।

জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে জনসাধারনকে অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আজও অনেককে মাস্কবিহীন বাইরে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে।

যশোর সেনা নিবাসের ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের ক্যাপ্টেন মাশরুর রামীম বলেন, সাধারন মানুষ যাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন ও ঘরে অবস্থান করেন সে বিষয়ে কাজ করা হচ্ছে। মেবাইল পেট্রোলিং এর মাধ্যমে বিধি নিষেধ কায্যকর করা হচ্ছে।

সাধারণ মানুষের উদ্যেশে তিনি আরো বলেন, দয়া করে প্রয়োজন ছাড়া আপনারা কেউ বের হবেন না। আমরা এ দিকটাও লক্ষ্য রাখছি যাতে কেউ বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বাইরে বের না হন। #

Share This Post