খুলনার মুজগুন্নি মহাসড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবিতে নিসচার মানববন্ধন

খুলনার মুজগুন্নি মহাসড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবিতে নিসচার মানববন্ধন

এম এ আজিম, (খুলনা): চলাচলের অনুপযোগী খুলনা মহানগরীর মুজগুন্নি মহাসড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২ অক্টোবর) দুপুরে মহানগরীর মুজগুন্নি শিশুপার্কের সামনে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) খুলনা মহানগর শাখা এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।নিসচার খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি এস এম ইকবাল হোসেন বিপ্লবের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মুন্নার সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন পরিবেশ সুরক্ষায় উপকূলীয় জোটের আহবায়ক এস এম শাহনওয়াজ আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কমান্ডার ইস্কান্দার আলী, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কমান্ডার শ্যামল কুমার, লবনচরা টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান মোসলেহ উদ্দিন তুহিন, নিচসার সহ-সভাপতি শেখ মো: নাসির উদ্দিন, আব্দুস সালাম শিমুল, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো: রুহুল আমীন তালুকদার সোহাগ, মো: ইলিয়াস হোসেন লাবু, মো: রকিব উদ্দিন ফারাজী, অর্থ সম্পাদক মো: নাজমুল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারহানা চৌধুরী কনিকা, দপ্তর সম্পাদক এম মোস্তফা কামাল, প্রচার সম্পাদক মো: সোলায়মান হোসেন, প্রকাশনা সম্পাদক মো: নাসির উদ্দিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মো: মাসুম বিল্লাহ, ক্রীড়া সম্পাদক মো. মনিরুল ইসলাম সাগর, কার্য্যনির্বাহী সদস্য বনানী আফরোজা, মো: শামীম হোসেন, তানিয়া সুলতানা, মাহমুদা আক্তার লিজা, কাজী রাসেল, মাথাভাঙ্গা কাজী পাড়া সিদ্দীকিয়া জামে  মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কাজী মো. কামরুল ইসলাম, মুজগুন্নি এলাকার বাসিন্দা আবু জাফর শিকদার, শেখ আবুল কালাম আজাদ, তালিবুর রহমান, শেখ মিজানুর রহমান, শহিদুল ইসলাম লস্কর, অজয় কুমার রায়, সিকদার আলী, রেজাউল ইসলাম, নজির হোসেন, মোঃ আকরাম হোসেন, কবির হোসেন, নাজমুল হোসেন।মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, খুলনা মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোর মধ্যে মুজগুন্নি মহাসড়ক অন্যতম। সোনাডাঙ্গা আন্ত:জেলা বাস টার্মিনাল থেকে নতুন রাস্তা মোড় পর্যন্ত এ সড়কটির অবস্থান। নগরীর সোনাডাঙ্গ আন্ত:জেলা বাস টার্নিমাল থেকে খালিশপুর নতুন রাস্তা মোড় পর্যন্ত সড়কের আশপাশ দিয়ে গড়ে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের একমাত্র বিশেষায়িত শেখ আবু নাসের হাসপাতাল, খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সেক্টর সদর দপ্তর, নৌ-বাহিনী ঘাঁটি (বানৌজা তিতুমীর), বিএনএন স্কুল এন্ড কলেজ, এ্যাংকরেজ স্কুল, নৌ-বাহিনী ভর্তি কেন্দ্র, নাবিক কলোনী, খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন, মুজগুন্নি শিশু পার্ক, ইমাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, খুলনা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, রায়েরমহল (অনার্স) কলেজ, নগরস্বাস্থ্য কেন্দ্রসহ সরকারি-বেসরকারি অসংখ্য প্রতিষ্ঠান। কিন্তু এ সড়কটির বর্তমান অবস্থা এতই বেহাল যে, বড় বড় খানা-খন্দ ও গর্ত হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা তৈরি হয় এ সড়কে। প্রতিনিয়ন দূর্ঘটনা ঘটছে। সিটি কর্পোরেশন সড়ক সংস্কার না করায় সড়কটি বর্তমানে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে।তারা আরও বলেন, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) চরম অবহেলা, অদক্ষতা ও অযোগ্যকার কারণে খুলনা মহানগরীর প্রবেশ পথ শিপউয়ার্ড সড়ক ও এম এ বারি লিংক সড়ক সম্পূর্ণ চলাচলের অনুপযোগী। মাত্র সাড়ে ৩ কিলোমিটার শিপইয়ার্ড সড়কটি সংস্কারের জন্য সরকার ৩ দফায় প্রায় ২৫৯ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। কিন্তু গত ৮ বছরেও সড়কটি সংস্কার করা হয়নি। এ টাকার কোন হিসাব কর্তৃপক্ষের কাছে নেই। নগরবাসীর ভোগান্তির জন্য কেডিএ কর্তৃপক্ষকে দায়ী করছেন বক্তারা।   তারা রূপসা-শিপইয়ার্ড, সোনাডাঙ্গার এম এ বারি লিংক সড়ক ও মুজগুন্নি মহাসড়কসহ সকল বেহাল সড়ক সংস্কারের জন্য খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ) ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) সুদৃষ্টি কামনা করেন।

Share This Post