‘ক্যাটল স্পেশাল ট্রেন’ ঢাকার পথে

‘ক্যাটল স্পেশাল ট্রেন’ ঢাকার পথে

রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমচাষিদের জন্য ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন চালু করা হয়েছিল। এখন সেই ট্রেনের নাম হয়েছে ‘ক্যাটল স্পেশাল’। শনিবার বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে রাজশাহী হয়ে রাজধানী ঢাকার উদ্দেশে ট্রেনটি ছেড়ে গেছে।
বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে বিকালে এ ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনের উদ্বোধন করেন। এ সময় পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিন বলেন, প্রথম দিন ১২০টি গরু নিয়ে ক্যাটেল ট্রেন যাত্রা শুরু করেছে। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ৮০টি, রাজশাহী থেকে ২০টি ও বড়াল ব্রিজ থেকে ২০টি গরু পরিবহন করা হয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে চারটি ওয়াগনে মোট ৮০টি গরু বুক করা হয় ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনে। এতে ভাড়া বাবদ আদায় করা হয়েছে ৪৭ হাজার ৩২০ টাকা। রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ১টি ওয়াগনে ২০টি গরু বুক করা হয়েছে। এতে ভাড়া আদায় হয়েছে ১১ হাজার ৩৮০ টাকা। এছাড়া বড়াল ব্রিজ স্টেশনে ১টি ওয়াগনে ১০০টি ছাগল ও ২০টি গরু বুক করা হয়েছে। ভাড়া আদায় করা হয়েছে ৯ হাজার ২৩০ টাকা। মোট ভাড়া আদায় করা ৬৮ হয়েছে ৩৮০ টাকা। শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে।
রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক আবদুল করিম জানান, প্রথম দিনের জন্য আগেই বুকিং দেয়া হয়েছিল। এ দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২০টি, রাজশাহীর ২০টি ও বড়াল স্টেশন থেকে ২০টিসহ মোট ১২০টি গরুর বুকিং ছিল। মোট তিন দিন চলবে এই ট্রেন।
স্টেশন ব্যবস্থাপক জানান, ট্রেনটির একটি ওয়াগনের ভাড়া ১১ হাজার ৮৩০ টাকা। এতে ২০টি গরু নেয়া যাবে। কারও ২০টি গরু না থাকলে কয়েকজন ব্যাপারী একসঙ্গে অথবা কয়েকজন খামারি একসঙ্গে হয়ে ওয়াগন নিতে পারবেন। এতে প্রত্যেক গরুর জন্য রাজশাহী থেকে ভাড়া পড়বে ৫৯১ টাকা ৫০ পয়সা।
এ বিশেষ ট্রেন সার্ভিস ১৭ থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত থাকবে বলেও জানান পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

Share This Post