কালকিনিতে নূর ক্লিনিকের ডাক্তার ও নার্সের ভুল চিকিৎসায় এক নারীর মৃত্যুর অভিযোগ

কালকিনিতে  নূর ক্লিনিকের ডাক্তার ও নার্সের ভুল চিকিৎসায় এক নারীর মৃত্যুর অভিযোগ

এসএম আরাফাত হাসান :
মাদারীপুরের কালকিনির ভুরঘাটা মসজিদ বাড়ী এলাকায় নূর ক্লিনিকের ডাক্তার ও নার্সের ভুল চিকিৎসায় রেসমা আক্তার নামে এক নারীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।রেসমা আক্তার (২০) নামের ঐ রোগী সোমবার বিকেলে মারা যান।

নিহত রেশমা কালকিনি উপজেলার বেইলিব্রীজ এলাকার ছত্তার খানের মেয়ে । স্বজনদের অভিযোগ নুর ক্লিনিকের ডাক্তারদের ভুল চিকিৎসার ফলে রেশমা মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের স্বজনেরা জানান, গত ১৫ দিন আগে প্রসব ব্যথা নিয়ে নুর ক্লিনিকে যায় রেশমা । পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাচ্চা ভাল নেই বলে সিজার করানোর কথা বললে রেশমার পরিবার সিজারের অনুমতি দেয়। কিন্তু সিজারের পর থেকেই রেশমা পেটে ব্যথা অনুভব করে এবং অল্প অল্প রক্তক্ষরণ হতে থাকে। এই সমস্যা নিয়ে নুর ক্লিনিকে গেলে সিজার করার স্থানটি ১৫ দিনের মধ্যে নতুন করে আরও তিনবার সেলাই করেন তারা । প্রথমে নার্স দিয়ে সেলাই কেটে পুনরায় সেলাই দিয়ে দেয়। তাতেও সমস্যা সমাধান না হলে আবারও ডিউটি ডিপ্লোমা ডাক্তার দিয়ে সেলাই কেটে পুনরায় সেলাই দিয়ে রোগীকে বরিশাল পাঠিয়ে দেয়। বরিশাল নেয়ার পথে সোমবার রেশমা মৃত্যু হয়। ঘটনার পরে ক্লিনিকের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এ ব্যাপারে নূর ক্লিনিকের মালিক উপজেলা চেয়ারম্যান মীর গোলাম ফারুক রোগীর লোকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ নিহতের ভাই ইব্রাহিম খলিল। তিনি বলেন, রোগীকে ক্লিনিকের ডাক্তার অন্য কোথাও উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ না দিয়ে নিজেরাই সেলাই কাটে আবার সেলাই করেন। এতে করে মৃত্যুর কোলে ঢলে আমার বোন।

অভিযুক্ত ক্লিনিকের মালিক ও ডাক্তারদের সাথে যোগাযোগ করতে ক্লিনিকে গেলে তাদের পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে কালকিনি থানার ওসি ইশতিয়াক আশফাক রাসেল বলেন,পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share This Post