একমাত্র বাংলাদেশেই জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করেছে: আইজিপি

একমাত্র বাংলাদেশেই জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করেছে: আইজিপি

বাংলাদেশ একমাত্র দেশ যেখানে জঙ্গিরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নিজ উদ্যোগে এসে আত্মসমর্পণ করেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কক্সবাজারের একটি হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

অপরাধ প্রবণতা ঠেকাতে ঝুঁকিতে থাকা ৩৬ জন যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে প্রশিক্ষণের সমাপনী উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পুলিশের এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

‘অপরাধকে না বলুন’ স্লোগানকে সামনে রেখে ‘নবজাগরণ’ শীর্ষক র‌্যাবের এ কর্মসূচির আওতায় পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অপরাধ ঝুঁকিতে থাকা লোকদের চিহ্নিত করে সুন্দর, স্বাভাবিক জীবনযাপনের জন্য উৎসাহিত করা হবে।

আইজিপি বলেন, জঙ্গিদের মধ্যে যারা নিজের ভুল বুঝতে পেরে সমাজের সহজ পথে ফিরে এসেছে, তাদের জীবনে মারাত্মক ঝুঁকি ছিল। আমরা সেই সময়ে যারা কাজ করেছি তাদের জীবনেরও ঝুঁকি ছিল। সেটা করতে গিয়ে আমাদের অভিনব কাজ করতে হয়েছে। যা এখনো প্রকাশ্যে বলার সময় হয়নি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ একমাত্র দেশ যেখানে ধর্মীয় উগ্রবাদী-জঙ্গিরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নিজ উদ্যোগে ও স্বেচ্ছায় এসে আত্মসমর্পণ করেছে। এমন ঘটনাও আমরা দেখেছি যেখানে তার সন্তানকে নিজে এসে র‍্যাবের হাতে তুলে দিয়েছে জঙ্গি থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে। আত্মসমর্পণ করা জঙ্গিদের আমরা সমাজে পুনর্বাসিত করেছি, তবে সেই পুনর্বাসন ব্যবস্থা তখন সহজ ছিল না।

তিনি আরো বলেন, সুন্দরবনে ৪০০ বছরের জলদস্যু সমস্যা ছিল সেটি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে নিশ্চিহ্ন করেছি। তা কিন্তু শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে নয় সমঝোতার মাধ্যমে করা হয়েছিল। জলদস্যুদের আত্মসমর্পণের মধ্যেই র‍্যাব থেমে থাকেনি প্রায় ৩০০ জলদস্যুকে এখনো বিভিন্নভাবে সহায়তা করে যাচ্ছে র‍্যাব। এই জলদস্যু এখন সমাজের মূলধারায় ফিরে গিয়ে স্বাভাবিকভাবে জীবন-যাপন করছে।

অপরাধী হিসেবে কেউ জন্ম নেয় না মন্তব্য করে পুলিশ প্রধান বলেন, মূলত সমাজ, পরিবেশ ও পরিস্থিতি তাকে অপরাধী হিসেবে পরিণত করে। যেসব সামাজিক পরিস্থিতি তাকে অপরাধী হতে বাধ্য করে, সেগুলোকে আগে থেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে সমাজ থেকে অপরাধ কমিয়ে আনা সম্ভব। পৃথিবীর কোথাও এমন নেই যেখানে শূন্য অপরাধ। তবে শূন্য অপরাধ সমাজ কায়েম করতে আমরা চেষ্টা করতে পারি।

Share This Post
eskişehir escort - escort adana - bursa escort - escort izmit - escorteskişehir escort - escort adana - bursa escort - escort izmit - escort