ইটের সঠিক সাইজ এবং গুণগত মানসনদ গ্রহণ বিষয়ে বগুড়া জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাথে বিএসটিআই’র মতবিনিময়

ইটের সঠিক সাইজ এবং গুণগত মানসনদ গ্রহণ বিষয়ে বগুড়া জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাথে বিএসটিআই’র মতবিনিময়

দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে ‘ক্লে-ব্রিকস্ (ইট)’ একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্মাণ সামগ্রী। ‘ক্লে-ব্রিকস্ (ইট)’ এর গুণগতমানের উপর বিভিন্ন স্থাপনা যেমন- ইমারত, রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট ইত্যাদির স্থায়িত্বকাল নির্ভর করে। এর প্রেক্ষিতে সরকার ‘ক্লে-ব্রিকস্ (ইট)’ এর গুণগত মানসনদ গ্রহণ বাধ্যতামূলক করেছে এবং এ সনদ প্রদানের দায়িত্ব বিএসটিআই’র উপর অর্পণ করেছে। উল্লেখ্য, গুণগত মানসনদ গ্রহণ ব্যতিরেকে ‘ক্লে-ব্রিকস্ (ইট)’ বিক্রি ও বিতরণ সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ এবং দন্ডণীয় অপরাধ। ‘ক্লে-ব্রিকস্ (ইট)’ এর জন্য নির্ধারিত জাতীয় মান (বিডিএস ২০৮ঃ২০০৯)-এ একটি স্ট্যান্ডার্ড সাইজ রয়েছে, যা অনেক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান অনুসরণ করেন না। এর সমাধানকল্পে সঠিক সাইজের ইট তৈরি ও সরবরাহ নিশ্চিতকরণ এবং বিএসটিআই’র গুণগত মানসনদ গ্রহণ/নবায়ন বিষয়ে অদ্য ১৯-১০-২০২১ খ্রি. তারিখে বগুড়া জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাথে বিএসটিআই’র এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বনানীতে অবস্থিত বগুড়া জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত উক্ত মতবিনিময় সভায় বিএসটিআই হতে লাইসেন্স প্রাপ্তির পদ্ধতি, লাইসেন্স গ্রহণের গুরুত্ব, ইটের স্ট্যান্ডার্ড সাইজ, বর্তমানে বগুড়া জেলায় লাইসেন্সের অবস্থা প্রভৃতি বিষয়ে আলোকপাত করেন বিএসটিআই জেলা অফিস, বগুড়া এর পরিদর্শনকারী কর্মকর্তা (সিএম উইং) প্রকৌশলী জুনায়েদ আহমেদ। সভায় ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি জনাব আবুল কালাম আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক জনাব আতিকুর রহমান বাদল সহ প্রায় ১৬০টি ইটভাটার মালিক ও প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  

Share This Post