আক্ষেপ হয়ে রইলো সাকিবের ওই ওভারটাই : অস্ট্রেলিয়ার কষ্টার্জিত জয়

আক্ষেপ হয়ে রইলো সাকিবের ওই ওভারটাই : অস্ট্রেলিয়ার কষ্টার্জিত জয়

অবশেষে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের দেখা পেলো অস্ট্রেলিয়া। জয়ের খোঁজে তিনটি পরিবর্তন এনেছিলো অস্ট্রেলিয়া। বেন ম্যাকডারমট ও ড্যান ক্রিস্টিয়ান ফেরেন, অভিষেক হয় পেসার নাথান এলিসের। বাদ পড়েন জশ ফিলিপে ও অ্যান্ড্রু টাই। টানা ৫ ম্যাচ টসে হারার পর এবার জিতেছেন মাহমুদউল্লাহ। টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তৃতীয় ম্যাচে ভিন্ন কৌশল অস্ট্রেলিয়ার। অ্যাশটন টার্নারকে দিয়ে বোলিং ওপেন করিয়েছেন অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। বাংলাদেশের বেঁধে দেওয়া ১০৫ রানের টার্গেট পার হতে ৭ উইকেট খোয়াতে হয়েছে অজিদের। শেষ পর্যন্ত টানা তিন ম্যাচ হারের পর তিন উইকেটের ব্যবধানে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আজ শনিবার (৭ আগস্ট) মিরপুরে অনুষ্ঠিত পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং করে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১০৪ রানেই থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস। ওপেনিংয়ে নামা সৌম্য সরকার মাত্র ৮ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। সাকিব আজ তেমন সুবিধা করতে পারেননি। দলীয় ৫১ রানের মাথায় আউট হয়ে যান অধিনায়ক রিয়াদও। ওপেনিংয়ে নামা মোহাম্মদ নাইম শেখ ব্যক্তিগত ২৮ রান করে ফিরে যান। আফিফ হোসেন ১৭ বলে ২০ রানের একটি ইনিংস খেলে আউট হন। ৩৭, ২১, ৩- তিন ম্যাচে দুই ওপেনার ফেরার সময় বাংলাদেশের স্কোর। জিম্বাবুয়ে সফরের ফর্মটা এ সিরিজে টেনে আনতে পারেননি সৌম্য বা নাঈম।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলীয় তিন রানের মাথায় ফিরেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। ড্যান ক্রিশ্চিয়ান মাত্র ১৫ বলে ৩৯ রানের একটি ঝড়ো ইনিংস খেলে অজিদের জয়ের ভিত গড়ে দিয়ে যান। অ্যাশটন অ্যাগার ও টার্নারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ধাক্কা সামাল এগিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। শেষ দিকে ২৭ বলে ২৭ রান করা অ্যাগারকে ফিরিয়ে দেন শরিফুল ইসলাম। কিন্তু সিরিজে প্রথম জয় পেতে কোনো সমস্যা হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। শেষ দিকে অ্যাশটন অ্যাগারের ২৭ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারীরা।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট শিকার করেন মেহেদী হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমান।

পুুঁজি মাত্র ১০৪ রানের। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে এই পুঁজি নিয়ে লড়াই করার কথা ভাবাও তো কঠিন। সেই কঠিন কাজটিই করলেন টাইগার বোলাররা। এমনকি একটা সময় জয়ের সম্ভাবনাও তৈরি করেছিলেন তারা। যদিও শেষ রক্ষা হয়নি। ১০৫ রানের লক্ষ্য যেখনে, সেখানে শুরুতেই অসিরা সাকিব আল হাসান এর এক ওভারে ৫টি ছক্কার থেকে সংগ্রহ করেছে ৩০ রান। সাকিবের বলে টানা তিনটি ছক্কা মেরে মাঝে একটি বল ক্ষান্ত দেন। এরপর টানা দুটি ছক্কার মার মারেন ক্রিশ্চিয়ান। পুরো ম্যাচের টার্নিং পয়েন্টই ওই একটি ওভার। সাকিব পুরো ৪ ওভার বল করে দিলেন ৫০ রান। উইকেট পাননি একটিও।
১৫ বছর আগেআন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল সাকিব আল হাসানের। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে সাকিব বাংলাদেশের ইতিহাস-সেরা ক্রীড়াবিদ তো বটেই, নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার হিসেবে।
সাকিব আল হাসানকে শুরু থেকেই নড়বড়ে লাগছিল। ব্যাটে-বলে ঠিকমতো টাইমিং করতে পারছিলেন না। বারকয়েক ক্যাচের মতো হয়েছে। এর মধ্যে ইনিংসের পঞ্চম ওভারে নিশ্চিত একটি এলবিডব্লিউয়ের আবেদন থেকে বেঁচে যান সাকিব। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছেন গত মাসেই জিম্বাবুয়েতে দারুণ অভিষেকে সাড়া ফেলে দেয়া শামীম পাটোয়ারী।

আইসিসির আচরণবিধি ভঙ্গ করায় শাস্তি পেয়েছেন শরিফুল ইসলাম।অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মিচেল মার্শকে আউট করার পর এই তরুণ পেসারের উদযাপন ছিল আগ্রাসী। আনুষ্ঠানিকভাবে তিরস্কার এর পাশাপাশি তার নামের পাশে যুক্ত হয়েছে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট।শরিফুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন ম্যাচের চার আম্পায়ার।এই প্রথম শরিফুলের নামের পাশে যুক্ত হলো ডিমেরিট পয়েন্ট, যা বহাল থাকবে আগামী ২৪ মাস।
আগামী সোমবার জয়ে ফিরতে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

Share This Post