অনলাইন শপিং -এ অনন্য অভিজ্ঞতাদানে দারাজের সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম

অনলাইন শপিং -এ অনন্য অভিজ্ঞতাদানে দারাজের সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম

সম্প্রতি, দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ বাংলাদেশ (https://www.daraz.com.bd/) ক্রেতাদের নিকট পণ্য বিক্রির অভিজ্ঞতাকে আরও অনন্য করে তুলতে ‘সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম’ নিয়ে এসেছে। এ প্রোগ্রাম দারাজের মান বজায় রাখতে এবং বিক্রেতা ও প্ল্যাটফর্মের সামগ্রিক ব্যবসায়িক পদ্ধতি উন্নত করতে সহায়তা করবে।
এ উপলক্ষে দারাজ বাংলাদেশের সেলার মার্কেটপ্লেস অ্যান্ড বিজনেস ইন্টেলিজেন্স- কমার্শিয়াল ডিরেক্টর কামরুল হাসান বলেন, “সাধারণত অনলাইন থেকে পণ্য অর্ডারের বিষয়ে ক্রেতারা উদ্বিগ্ন থাকেন। তাই, ই-কমার্সের ক্ষেত্রে আস্থা ও বিশ্বাস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়; এটি ক্রেতাদের প্রতিটি অর্ডারের সিদ্ধান্তেই পরিবর্তন হয়। দারাজে আমরা সবসময়ই সর্বোচ্চ মান সম্পন্ন সেবার মাধ্যমে ক্রেতাদের চমৎকার পণ্য ক্রয়ের অভিজ্ঞতা দিতে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, ক্রেতারা আমাদের ওপর যে বিশ্বাস ও আস্থা রেখেছেন তা বজায় রাখা। আমরা বিশ্বাস করি, সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম আমাদের বিক্রেতাদের সহযোগিতায় ক্রেতাদের সাথে একটি সুন্দর ও দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্ক গড়ে তুলতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে” ।
ক্রেতাদের বিশ্বস্ত কেনাকাটার অভিজ্ঞতা নিশ্চিত ও উৎসাহিত করার লক্ষ্যেই সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। এ প্রোগ্রামটি দারাজে ক্রেতাদের বিশ্বাস ও আস্থা অর্জনকারী বিক্রেতাদের অনন্য সেবাদানে উৎসাহিত করবে।
উন্নত মানের পণ্য ও সেবা প্রদানকারী বিক্রেতারা অন্যান্য অল্প কয়েকজন বিক্রেতার ত্রুটির জন্য দায়ী থাকবেন না। দারাজ বিক্রেতাদের কঠোর পরিশ্রমকে স্বীকৃতি দেয় এবং তাদের কষ্টে অর্জিত খ্যাতির যথাযথ মূল্যায়ন করে। যে বিক্রেতারা দারাজের সাথে কাজ করার জন্য অনুপুযুক্ত তাদেরকে এ প্রোগ্রামের মাধ্যমে সঠিকভাবে ফিল্টার করা যাবে।
দারাজের সেলার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম’র মূল লক্ষ্য থাকবে বর্তমান ক্রেতা ও বিক্রেতাদের ক্রয়-বিক্রয়ের অভিজ্ঞতাকে আরও উন্নত ও অসাধারণ করে তোলা।

দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ, অসংখ্য বিক্রেতাকে লক্ষাধিক ক্রেতাদের সাথে যুক্ত করেছে। একশো’রও বেশি ক্যাটাগরির প্রায় ১ কোটি ৯০ লাখের বেশি পণ্য কেনাকাটায় গ্রাহকদের তাৎক্ষনিক এবং সহজ সুবিধাদানের সাথে সাথে প্রতি মাসে ২০ লাখেরও বেশি পণ্য বিশ্বের সকল প্রান্তে পৌঁছে দিচ্ছে দারাজ। দারাজ তার গ্রাহকদের জন্য একইসাথে একটি বাজার, মার্কেটপ্লেস এবং কমিউনিটি। দারাজ উদ্যোক্তাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো, কেননা প্রতিষ্ঠানটি প্রতিমাসে ই-কমার্স সম্পর্কে পাঁচ হাজারেরও বেশি নতুন বিক্রেতাকে সচেতন করে তোলে। দারাজ বিভিন্ন লজিস্টিক চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে উঠার লক্ষ্যে, বিশেষত তাদের ই-কমার্স অপারেশনগুলোকে মাথায় রেখে ‘দারাজ এক্সপ্রেস’ (ডেক্স নামে পরিচিত) নামক নিজেদের লজিস্টিক কোম্পানি গঠন করেছে। দারাজ বিদ্যমান এবং নতুন লজিস্টিক সরবরাহকারীদের ডিজিটালকরণে সহায়তা করছে। ২০১৮ সালে আলীবাবা গ্রুপ দারাজকে অধিগ্রহণ করে এবং ‘ডিজিটাল অর্থনীতির যুগে যেকোন স্থানে ব্যবসা সহজীকরণ’- এই লক্ষ্যের অংশ হিসেবে দারাজ গর্বের সাথে কাজ করে চলেছে। আলীবাবার অংশ হিসেবে, দারাজ বাজারে তার প্রতিষ্ঠানগত উন্নয়নে আলীবাবার নেতৃত্ব এবং প্রযুক্তি, অনলাইন বাণিজ্য, মোবাইল পেমেন্ট এবং লজিস্টিকের অভিজ্ঞতাকে ব্যবহার করছে।

Share This Post