আপিলেও বহাল রবিনহোর ৯ বছরের জেল

আপিলেও বহাল রবিনহোর ৯ বছরের জেল

ইতালির আদালত যৌন হেনস্তার দায়ে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকা রবিনহোকে ৯ বছরের সাজা দিয়েছিল। পরে এই শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করে রবিনহো। কিন্তু মিলানের আদালত তার আপিল খারিজ করে দিয়েছেন।
ব্রাজিলের ৩৬ বছর বয়সী এই তারকার বিরুদ্ধে ওই রাতে ধর্ষণের অভিযোগ করেন ২২ বছর বয়সী এক আলবেনিয়ান নারী।
২০১৩ সালের ২২ জানুয়ারির ঘটনা। এসি মিলানের তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি এবং তাঁর চার বন্ধু মিলে অভিযোগকারী তরুণীকে মদ্যপান করান। এরপর পালা করে ওই তরুণীর সঙ্গে যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হন পাঁচ অভিযুক্ত। 
ইতালির মিলান ডেইলি’র প্রকাশিত খবর অনুযায়ী নেশাগ্রস্ত থাকায় ধর্ষকদের রুখতে পারেননি ধর্ষিতা। তরুণী যাতে তন্দ্রাছন্ন থাকেন সেই জন্যই না কি রবিনহো এবং তার চার বন্ধু তাকে মাদক মেশানো পানীয় পান করায়। 
যদিও ব্রাজিলিয়ান তারকা তার বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে নিজেকে নির্দোষও দাবি করেন এই এসি মিলান তারকা। 
রবিনহোর বন্ধু রিকার্ডো ফালকোকেও সহযোগিতার কারণে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ব্রাজিলের সাবেক ফরোয়ার্ড এই ঘটনায় নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন। তার আইনজীবী এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছিলেন। 
রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার সিটিতে খেলে মিলানে যোগ দেন রবিনহো। ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ইতালিয়ান ক্লাবটিতে ছিলেন তিনি। যদিও শেষ এক বছর ধারে খেলেন ছেলেবেলার ক্লাব সান্তোসে। এই অক্টোবরে আবারও ব্রাজিলিয়ান ক্লাবে যোগ দিয়েছিলেন রবিনহো। কিন্তু জনরোষের মুখে চারদিনের মাথায় তার চুক্তি বাতিল হয়।
‘নারীদের প্রতি অসম্মান’ করা একজনকে দলে নেওয়ায় সান্তোসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল ক্লাবটির এক স্পন্সর কোম্পানি।
উল্লেখ্য, এর আগেও রবিনহোর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে। ২০০৯ সালে একটি নাইটক্লাবে এক মহিলাকে যৌন হেনস্থার ঘটনায় শিরোনামে এসেছিলেন ব্রাজিলের হয়ে ১০০ ম্যাচ খেলা ফুটবলার রবিনহো। 

Ahsan Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *